ই-লোন নিয়ে সাতক্ষীরা শপের সাফল্যের গল্প

ShopUp
4 min readDec 12, 2018

হাসান রাজ তৈরী করেছেন সাতক্ষীরা শপ নামের একটি অনলাইন ব্যবসা, যেখানে তিনি সাতক্ষীরা থেকে সরাসরি খাঁটি ঘি, মধু, মিষ্টি ও গুড় সরবরাহ করছে ঢাকার ঘরে ঘরে। ই-লোন এবং ই-কমার্স নিয়ে উনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করছেন একটি শর্ট ইন্টারভিউতে।

Why did you start your online business?

আমার পড়াশোনাটা হচ্ছে টেকনিক্যাল লাইনে। সাতক্ষীরা থেকে এসএসসি ও এইচএসসি শেষ করে ঢাকায় আসি, কম্পিউটার সাইন্সে বিএসসি করে ফেলি। সবসময়ই ইচ্ছে ছিল এই কম্পিউটার কিংবা অনলাইনের দিকে কিছু করার। যখন আমি সাতক্ষীরা শপটা স্টার্ট করি তখন বাংলাদেশে ই-কমার্স ততটা ভালোভাবে গড়ে ওঠেনি। তবুও কেন যেন মনে হলো একদিন এই সেক্টরে আমাদের দেশ অনেক উন্নতি করবে। তাই ২০১৫ সালে শুরু করি এই অনলাইন বিজনেসটা।

সাতক্ষীরার মিষ্টি কিংবা এ জাতীয় খাদ্যদ্রব্যের নামডাক বহুদূর জুড়েই ছড়িয়ে আছে। আমি চাচ্ছিলাম একদম সাতক্ষীরার প্রোডাক্টটাই যদি কোনভাবে ঢাকার মানুষের কাছে পৌছে দেয়া যেত, তবে হয়তো সবারই উপকার হতো। এরকম চিন্তাভাবনা থেকেই সাতক্ষীরা শপের শুরু।

What was the biggest obstacle to grow your business?

যখন আমি ই-কমার্সে আসি তখন কিন্তু এখনকার মত গোছানো একটা ভাব এই ইন্ডাস্ট্রিতে ছিলোনা। এখন ই-কমার্সের মানুষের মাঝে অনেক সুন্দর একটা কানেকশন আছে। আমাদের সময়ে এত সুযোগ-সুবিধা ছিল কল্পনারও বাইরে। নতুন করে কীভাবে একটা ব্যবসা শুধুমাত্র অনলাইন ভিত্তিতে দাঁড় করিয়ে ফেলব তা নিয়ে একটু চিন্তা তো ছিলোই।

আমার প্রোডাক্টগুলো সরাসরি সাতক্ষীরা, যশোর ও সুন্দরবন থেকে আসে। কিন্তু অনেক সময় কাস্টমারকে বিশ্বাস করানোটা অনেক কষ্ট হয়ে যায় যে আমার প্রোডাক্টগুলো আসলেই খাঁটি। অনেকবারই হয়েছে কাস্টমার আমাকে জিজ্ঞেস করেছে আমি ঢাকার কোথাও প্রোডাক্ট বানিয়ে সেটা সাতক্ষীরায় বানানো বলে চালিয়ে দিচ্ছি কীনা! এছাড়া প্রোডাক্টগুলো খাবার হওয়ায় মান নিশ্চিত করে স্টোর করা ও ক্রেতার হাতে পৌছে দেয়াটাও অনেক বড় একটা চ্যালেঞ্জ। এক প্যাকেট মিষ্টি আমরা সাতক্ষীরা থেকে ঢাকায় আনবো, তারপর সেটাকে ক্রেতার হাতে তুলে দিব — এই প্রক্রিয়ার কোথাও কোন একটা ভুল হয়ে গেলেই কিন্তু আমাদের পুরো অর্ডারটার গুড়েবালি। আর আবহাওয়ার একটা ব্যাপার তো থাকছেই। সেইসাথে যদি কোন কারণে যোগাযোগ ব্যবস্থার কোন সমস্যা হয়, আমাদের বিজনেসটা তখন পুরোই বন্ধ রাখতে হয়।

ক্যাপিটালের একটা সমস্যা কিন্তু সবসময়ই আমাদের মত ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের থাকে। কেননা, আমাদের অনেক ইনভেস্টমেন্ট মার্কেটে রানিং থাকে। যদি উদাহরণ দিই তাহলে বলা যায়, মনে করুন আপনি এক লাখ টাকা নিয়ে ব্যবসাটা শুরু করলেন। যেহেতু ক্যাশ অন ডেলিভারি মেথডে ক্রেতা আপনাকে মূল্যটা পরিশোধ করবে তাই যতক্ষণ না আপনি তার হাতে পণ্য পৌছতে পারছেন ততক্ষণ টাকাটা আপনার কাছে উঠে আসছে না। এদিকে অন্যান্য সকল খরচ কিন্তু নিয়মিতভাবে চলছেই। তাই হয়তো আপনি এক লাখ টাকা নিয়েই ব্যবসাটা শুরু করলেন, কিন্তু দেখবেন যে এক লাখ টাকার প্রোডাক্ট আপনি স্টকে রাখতে পারছেন না।

মূলত এই চ্যালেঞ্জগুলোই আমার সামনে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলও।

How did e-loan help you? Share your experience.

শপআপ থেকে নেয়া ই-লোনটাই আমার প্রথম নেয়া লোন। এতটা সহজ-সরলভাবে লোন নেয়ার সব কাজ শেষ হয়ে যাবে এটা আমি কল্পনাতেও ভাবিনি!

আমার এই বিজনেসটাতে মূল মৌসুমটি হলো শীতকাল আর শীতকালের প্রধান আইটেমটি হচ্ছে মধু। একদম সুন্দরবনের মৌচাক থেকে ভেঙে আনা মধুটাই আমরা কাস্টমারদেরকে সাপ্লাই দেয়ার চেষ্টা করি। আমি চাচ্ছিলাম গত মৌসুমের চাইতে এবারের মৌসুমে টার্গেটটা আরো বড় করতে। কিন্তু ততটা ক্যাপিটাল আমার ছিলোনা। এরকম অবস্থা থেকেই আসলে শপআপ থেকে ই-লোন নেয়ার চিন্তা আসে। শপআপ থেকে লোনটা নেয়ার পর আমি এখন আমার ক্যাপাসিটিকে প্রায় দ্বিগুণ করে ফেলতে সক্ষম হয়েছি আলহামদুলিল্লাহ। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে তাই আশা করছি গত মৌসুমের চাইতে এ মৌসুমে লাভের পরিমাণটাও দ্বিগুণ হবে!

Do you have any message towards other online businesses?

আমরা যখন ই-কমার্সে আসি, তখন অবস্থা কিন্তু বেশ নাজুক ছিল। এখন সে অবস্থা আর নেই। কেউ চাইলেই নানা রকম সোর্স থেকে তথ্য-উপাত্ত নিয়ে যাচাই বাছাই করে ব্যবসাটা শুরু করতে পারে। আর লোন নেয়ার বিষয়টি একদম সহজ করে দিয়েছে শপআপ। এতটা সহজ শর্ত ও হ্যাসল-ফ্রি লোন নেয়ার ব্যবস্থা মনে হয়না বাংলাদেশে আর আছে!

অন্যদের জন্য আমি যেটা বলতে চাই সেটা হলো, না জেনে কেউ যেন এখানে কিছু না করে। নিজের অনুমানের উপর ভিত্তি করে ই-কমার্সে টিকে থাকাটা আমার কাছে বেশ কঠিন বলেই মনে হয়। আমি একদম জিরো থেকে শুরু করেছিলাম। কিন্তু এখন আলহামদুলিল্লাহ অনেক এমপি, সচিব, মিডিয়া ব্যক্তিত্বরা আমার প্রোডাক্টগুলো নিয়মিতভাবে নিয়ে থাকেন। আমার মনে হয় জেনেশুনে ও সাবধানে কিছু সঠিক সিধান্ত নিতে পেরেছি বলেই আজ এ পর্যন্ত আসতে পেরেছি। তাই এ লাইনে আসলে যেন অন্তত কিছুটা জানাশোনা থাকে আগে থেকে এটাই কাম্য।

--

--

ShopUp

ShopUp is a platform, and ecosystem to help small businesses grow.